সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০২:৫৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
বিশ্ব নদী দিব উপলক্ষে গলাচিপা “নেঙর” আয়োজনে রামনাবাদ নদী পরিদর্শন তালা প্রতীক নিয়ে জনপ্রিয়তার শীর্ষে মাসুদ আলম খান। দক্ষিণ এশিয়া বিজনেস এ্যাওয়ার্ড পেলেন এস.এম জাকির হোসেন এম ভি আল ওয়ালিদ-৯ লঞ্চে সন্তান প্রসব, পরিবারের জন্য আজীবন ভাড়া ফ্রী গলাচিপার কৃতি সন্তান মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি হওয়ায় আনন্দ মিছিল ও বিভিন্ন সংগঠনের অভিনন্দন। রাজৈরে ভোটঘর সোশ্যাল ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং উদ্বোধন মুন্সীগঞ্জে পুলিশের উপর হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মানিকগঞ্জে শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা চাঁদমারিতে সংঘাত-রক্তপাত, বেপরোয়া আলামিন বাহিনীর বিরুদ্ধে তিন মামলা জেলা পরিষদ নির্বাচনে কামরুলকে প্রার্থী করতে ইউপি সদস্যদের জোট

উদ্বোধন করলেন পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

মিঠুন পাল, পটুয়াখালী।দেশের বৃহৎ ১ হাজার ৩ শ‘২০ মেগাওয়াট পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্ব-শরীরে উপস্থিত থেকে এ বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি উদ্বোধন করেন। সেই সঙ্গে উদ্বোধন হলো দেশের প্রতিটি ঘরে ঘরে শতভাগ বিদ্যুতায়নের নিশ্চিয়তা।

এদিকে প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে দেশের ইতিহাসে একটি স্বরনীয় দিন হিসেবে বিদ্যুৎ কেন্দ্র ও এবং পটুয়াখালী জেলা থেকে শুরু করে বিভিন্ন ব্যানার ফেষ্টুন, বেলুন, রাস্তাঘাট ব্রীজে লাগানো স্পট লাইট সহ শহরের সরকারী বেসরকারী অফিস ভবনে রঙ্গিন বৈদ্যুতিক বাতির মাধ্যমে আলোয়ে জ্বালিয়ে সাজানো হয়েছে নতুন সাজে সাজিয়ে পটুয়াখালী জেলা।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চৌকোষ ও চুলছিড়া বিশ্লেষণে প্যান্ডেল সাজানোর কাজ শত ভাগ নিরাপত্তার চাঁদরে ঢেকে দেয়া হয়েছিলো পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার ধানখালী ইউনিয়ন।

উল্লেখ্য ২০১৪ সালে বাংলাদেশ নর্থওয়েস্ট পাওয়ার কোম্পানি ও চায়না ন্যাশনাল মেশিনারি ইমর্পোট অ্যান্ড এক্সর্পোট করপোরশনের (সিএমসি) মধ্যে ১৩২০ মেগাওয়াট পায়রা তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মানে চুক্তি স্বাক্ষর হয়। ২০১৬ সালের ১৪ অক্টোবর পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার ধানখালীতে কয়লা ভিত্তিক এ বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মানের ভিত্তি প্রস্থর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ২০২০ সালের ৮ ডিসেম্বর পুরো ১৩২০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে সক্ষম হয় এ পাওয়ার প্লানটি।

পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রকল্প পরিচালক শাহ গোলাম মওলা বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধনের ফলে পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট কয়লা ভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র দক্ষিনাঞ্চলে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবারহে সবচেয়ে বড় ভুমিকা পালন করবে।

পটুয়াখালী জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে সর্বোচ্চ গুরুত্ব সহকারে নিরাপত্তা পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়েছে। এই নিরাপত্তার মধ্যে কোভিট প্রটোকলও রয়েছে। সব পরিকল্পনা বাস্তবায়নের লক্ষে কাজ সম্পুর্ণ। এরই মধ্যে সাদা পোশাকের নিরাপত্তা বাহিনীসহ চার স্তরবিশিষ্ট নিরাপত্তা বাহিনী মাঠে কাজ করে উদ্বোধন অনুষ্ঠানটি সুন্দর ভাবে সম্পন্ন করেছি।

পটুয়াখালী জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামাল হোসেন বলেন, শুধু পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট তাপ বিদ্যুতই নয়, ওইদিন দেশের শতভাগ বিদ্যুতায়ন উদ্বোধন করেছেন, এটা দেশের ইতিহাসের পাতায় স্বরনীয় হয়ে থাকবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এঁর মহতী উদ্বোধনে আমি এবং জেলার সকল দ্বায়ীত্বশীলদ ব্যাক্তিদের আন্তরিক সহযোগীতায় উদ্বোধন অনুষ্ঠিনটি সুন্দর ভাবে করতে পেরে সকলের প্রতি ধন্যবাদ জানান।

##
মিঠুন পাল, পটুয়াখালী



আমাদের ফেসবুক পেজ
ব্রেকিং নিউজ