বৃহস্পতিবার, ২০ অক্টোবর ২০২২, ১২:৪৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
বিশ্ব নদী দিব উপলক্ষে গলাচিপা “নেঙর” আয়োজনে রামনাবাদ নদী পরিদর্শন তালা প্রতীক নিয়ে জনপ্রিয়তার শীর্ষে মাসুদ আলম খান। দক্ষিণ এশিয়া বিজনেস এ্যাওয়ার্ড পেলেন এস.এম জাকির হোসেন এম ভি আল ওয়ালিদ-৯ লঞ্চে সন্তান প্রসব, পরিবারের জন্য আজীবন ভাড়া ফ্রী গলাচিপার কৃতি সন্তান মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি হওয়ায় আনন্দ মিছিল ও বিভিন্ন সংগঠনের অভিনন্দন। রাজৈরে ভোটঘর সোশ্যাল ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং উদ্বোধন মুন্সীগঞ্জে পুলিশের উপর হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মানিকগঞ্জে শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা চাঁদমারিতে সংঘাত-রক্তপাত, বেপরোয়া আলামিন বাহিনীর বিরুদ্ধে তিন মামলা জেলা পরিষদ নির্বাচনে কামরুলকে প্রার্থী করতে ইউপি সদস্যদের জোট

এইচএসসি পরীক্ষার্থীর মুখে অ্যাসিড নিক্ষেপ

নাটোর সদর উপজেলার দিঘাপতিয়া ইউনিয়নের ডাঙ্গাপাড়া বাজারের পাশে সানজিদা আক্তার বীনা (১৯) নামের এক এইচএসসি পরীক্ষার্থীর মুখ অ্যাসিডে ঝলসে দিয়েছে বখাটেরা। গুরুতর আহত অবস্থায় বীনাকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল নিয়ে যাওয়া হয়।

সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে রাতেই তাকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়। অ্যাসিড দ্বগ্ধ বীনা ওই এলাকার নুরুল ইসলামের মেয়ে। সে চলতি বছর রাজশাহী সরকারি সিটি কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিলেন।

রবিবার (২১ নভেম্বর) সন্ধ্যায় সদরের ডাঙ্গাপাড়া বাজার সংলগ্ন রাস্তার পাশে এ ঘটনা ঘটে। অ্যাসিড নিক্ষেপকারীদের মধ্যে একজনের নাম মুহিন। সে পাশ্ববর্তী দত্তপড়া এলাকার আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে। মুহিনের সহযোগিদের পরিচয় এখনো জানা যায়নি। তাদের ধরতে অভিযান শুরু করেছে পুলিশের একাধিক টিম।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার জন্য নাটোরের বাড়ি থেকে প্রস্ততি নিচ্ছিলেন রাজশাহী সরকারি সিটি কলেজ পরীক্ষার্থী বীনা। তাকে প্রায়শই বিরক্ত করত স্থানীয় বখাটে মুহিন ও তার সহযোগিরা। রবিবার সন্ধ্যার আগে বীনা বাড়ির পাশে প্রাইভেট পড়ে ফেরার সময় বখাটে মুহিন তার দুই সহযোগি নিয়ে মোটরসাইকেল নিয়ে বীনার পথরোধ করে।

এসময় বীনা দাঁড়ানো মাত্রই বোতলে থাকা অ্যাসিড তার মুখে ছুঁড়ে দেয় মুহিন। বীনা চিৎকার করলে ঘটনাস্থল থেকে তিনজন দ্রুত পালিয়ে যায়। এসময় স্থানীয়রা বীনাকে উদ্ধার করে এবং তার বাড়ির লোকজনকে খবর দেয়। পরে পরিবারের লোকজন বীনাকে সরাসরি রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। রাত ৯টার দিকে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে রাজধানী ঢাকায় নেওয়া হয়।

বীনার চাচাতো ভাই মেহেদি হাসান জানান, বীনা একজন মেধাবী ছাত্রী। সামনেই তার উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা। সে পরীক্ষার জন্য প্রস্ততি নিচ্ছিল।

নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুনসুর রহমান বলেন, ঘটনার পর থেকে পুলিশ অ্যাসিড নিক্ষেপকারীদের ধরতে অভিযান শুরু করেছে। তবে পরিবারের সদস্যরা ভিকটিমকে নিয়ে হাসপাতালে অবস্থান করায় লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

নাটোরের পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা বলেছেন, ভিকটিমের অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে ঢাকায় নেওয়া হয়েছে। অ্যাসিড নিক্ষেপকারীদের ধরতে পুলিশ ও গোয়েন্দা পুলিশের একাধিক টিম মাঠে নেমেছে।



আমাদের ফেসবুক পেজ
ব্রেকিং নিউজ