রবিবার, ১২ জুন ২০২২, ০৮:২৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
নারী শ্রমিককে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওমর সানীকে গুলি করার হুমকি দেন বলে অভিযোগ কোনোদিন কারও কাছে মাথানত করিনি:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ভোলা চরফ্যাশনে শিশু ইসানকে পানিতে ফেলে হত্যার অভিযোগ আদালতের অনুমতি নিয়ে বিদেশ যেতে পারবেন খালেদা জিয়া:স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী চীফ হুইপের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কার্যক্রম উদ্বোধন ও নদী ভাঙ্গন কবলিত পরিবারের মাঝে চেক বিতরণ। উলানিয়া বন্দরে ইজারাদারের বিরুদ্ধে জোর জলুমের অভিযোগ, ব্যাবসায়ীরা হুমকির পথে ভোলা চরফ্যাশনে শশীভুশন থানাধীন বিশ্ব নবীকে কে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ গলাচিপায় এ কেমন শত্রুতা, গৃহপালিত প্রাণী গরু কুপিয়ে জখম !

ওমর সানীকে গুলি করার হুমকি দেন বলে অভিযোগ

অভিনেত্রী মৌসুমীকে অসম্মান করে কথা বলায় অভিনেতা ডিপজলের ছেলের বিয়েতে ওমর সানী ক্ষুব্ধ হয়ে জায়েদ খানকে চড় মারেন এবং জবাবে জায়েদ খান পিস্তল বের করে ওমর সানীকে গুলি করার হুমকি দেন বলে অভিযোগ উঠেছে। তবে অভিযোগ মিথ্যে বলে দাবি করেছেন জায়েদ খান। সমকালকে তিনি বলেন, ‘এমন কোনা ঘটনা সেখানে ঘটেনি।’

তবে মৌসুমীর স্বামী ওমর সানী জানান, ঘটনা সত্য। তিনি জায়েদ খানকে চড় দিয়েছেন। জায়েদও ওই সময় পিস্তল বের করে গুলি করার হুমকি দেন।

রোববার সমকালকে ওমর সানী বলেন, ‘ডিপজল ভাইয়ের ছেলের বিয়ের অনুষ্ঠানে আমি রাত নয়টায় উপস্থিত হই। অনেক দিন ধরে সে (জায়েদ) বেয়াদবি করে আসছিলো। ওকে আমি সরাসরি পাচ্ছিলাম না। এবার বিয়েতে তাকে পাই। আমি কথায় কথায় জায়েদকে চড় দেই। তখন জায়েদ পিস্তল উঠিয়ে গুলি করতে চায়। ওর কাছে তো লাইসেন্স করা পিস্তল আছে এটা তো সবাই জানেন।’

ওমর সানী জানান, ঘটনার সময় সেখানে অভিনেত্রী রোজিনা, সুচরিতা, অঞ্জনা উপস্থিত ছিলেন এবং তারা বিষয়টি দেখেছেন।

তিনি আরও বলেন, ‘জায়েদ খান তো সব সময় পিস্তল নিয়ে ঘোরে। ক্ষমতা দেখায়। ইন্ডাস্ট্রিতে ওর অত্যাচার সহ্য করতে করতে অনেকেই বিরক্ত। কেউ হয়তো মুখ ফুটে বলে না মানসম্মান হারানোর ভয়ে। আমি ভাবলাম, আর দেরি নয়, এখনই শুরু করতে হবে। তাই চড়টা দিয়ে শুরু করলাম। আমি চড় মেরেই বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে বের হয়ে যাই।’

ওই বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত কয়েকজন জানান, মৌসুমীর সঙ্গে জায়েদ খান খারাপ আচরণ করেছেন বলে তারা জেনেছেন। এটা নিয়ে জায়েদের ওপর ওমর সানী ভীষণ বিরক্ত ছিলেন। ডিপজলের কাছে এর বিচারও চান ওমর সানী। ডিপজল উভয়কে শান্ত থাকতে বলেন। উভয়কে উভয়ের কাছ থেকে দূরে থাকার পরামর্শও দেন।

কিন্তু ঘটনা সেখানে থেমে থাকেনি। ডিপজলের ওই সমাধান ওমর সানীর ভালো লাগেনি, মেনেও নেননি। তাই ডিপজলের ছেলের বিয়েতে পেয়েই জায়েদ খানকে চড় মেরে বসেন ওমর সানী এবং বলেন, ‘তোরে না নিষেধ করছি, আমার বউরে ডিস্টার্ব না করতে। কোনো ফাজলামি করবি না। অসম্মান করে কথা বলবি না।’ তখন জায়েদ খান কোমর থেকে পিস্তল বের করে বলেন, ‘একেবারে গুলি করে দেব।’



আমাদের ফেসবুক পেজ
ব্রেকিং নিউজ