শনিবার, ১১ জুন ২০২২, ০৪:৩০ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
গলাচিপায় এ কেমন শত্রুতা, গৃহপালিত প্রাণী গরু কুপিয়ে জখম ! বরিশালে লাভ ফর ফ্রেন্ডস এর উদ্দ্যাগে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত ডিবিসি নিউজের সংবাদকর্মীআব্দুল বারীকে নির্মমভাবে হত্যার প্রতিবাদে সিরাজগঞ্জে মানববন্ধন করোনা শনাক্ত দেশে বাড়ছে দশমিনা চরবোরহানে ভোটারদের বাড়ি ঘরে গভীর রাতে হামলার অভিযোগ, নেই কোন প্রতিকার ! ৭ টাকা বাড়ল সয়াবিন তেলের দাম লিটারে ইসলামের নবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে অবমাননাকর বক্তব্যের প্রতিবাদে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ গলাচিপায় দুই বরযাত্রীর মাথা কামানোর ঘটনায় ইউপি সদস্যসহ তিন জনের বিরুদ্ধে মামলা ! দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ১৩ রুটের বাস ভাড়া নির্ধারণ শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে লঞ্চ ও স্পিডবোট চলাচল বন্ধ

গলাচিপায় হতদরিদ্র আশ্রায়ন বাসিদের মাঝেঁ টিসিবি’র পণ্য বিক্রয়

 জেলা প্রতিনিধিঃ মিঠুন পাল, পটুয়াখালী। ‘টিসিবি’র পণ্য দামে সাশ্রয়ী, মানে অনন্য’ এর ব্যানারে পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার ডাকুয়া আশ্রায়নবাসিদের মাঝেঁ বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সহযোগীতায় ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ এর ভ্রাম্যমাণ ট্রাকের মাধ্যমে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশিষ কুমার এর নির্দেশনায় (টিসিবি’র) ডিলার মেসার্স রাসেল স্টোর এর মাধ্যমে ১’লা নভেম্ব সোমাবার সকাল ১০ টা থেকে বিভিন্ন আশ্রায়নবাসিদের মাঝে স্বল্প মূল্যে চাল, ডাল, তেলে ও চিনি বিক্রয় করা হয়। এতে বর্তমানে নিত্যপণ্যের দাম লাগাম হিন বেড়ে যাওয়ায়, টিসিবি’র পণ্য সরবরাহ হওয়ায়, জনসাধারণ ও নিম্নবিত্তের পরিবারের মাঝেঁ কিছুটা স্বস্তির নিশ্বাস ফেলেছে বলে আশ্রায়ন বাসি লিপি বেগম, কাকলী আক্তার, নূরু প্যাদা, জয়দেব হাওলাদর, নিখিল চন্দ্র শীল, বাবুল মাঝি সহ অনেকেই বলেন, আমরা গরীব মানুষ, বাজারে গেলে টাকার অভাবে সক দরকারি জিনিশ কিনতে পারিনা। অল্প ট্যাহায় দিয়া যা কিনছি এতেই আমাগো একটু উপকার হইছে। তবে এ অল্প জিনিশ দিয়া কিছুদিন চলা যায়, আরও একটু বেশি পাইলে আমাগো মতো গরীবরা একটু বাচঁতে পারতাম। হের পরেও সরকারে কাছে আমরা ধন্যবাদ জানাই। টিসিবি’র ডিলারের স্বত্তাধীকার মোঃ রাসেল হাওলাদর বলেন, বাংলাদেশর বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধিনে কিছুদিন পর পর জনসাধারণ ও নিম্নবিত্ত পরিবারের জন্য খোলাবাজারে ডাল ৫৫, চিনি ৫৫, পেয়াচ ৩০ ও সয়াবিন তেল লিটার প্রতি ১০০ টাকায় বিক্রয় হচ্ছে। যদিও বরাদ্দ পরিমাণ কম হওয়ায় জনসাধারণের প্রয়োজন মতো সরবারহ করতে পারছিনা। বরাদ্দ পরিমাণ বৃদ্ধি করা হলে কিছুটা হলেও প্রয়োজন মিটানো যেতো। এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশিষ কুমার বলেন, বর্তমান সরকারে চিন্তা ভাবনায় বাণিজ্য মন্ত্রণলয়ের নমাধ্যমে দেশের সব কয়টি জেলা উপজেলায় নিম্ন ও মধ্যবিত্ত জনসাধারণে জন্য টিসিবি’র স্বল্প মূল্যের নিত্যপণ্যের জিনিশ বিক্রয় করা হচ্ছে। হ্যা, এটা ঠিক যে প্রয়োজন অপেক্ষায় বরাদ্দকৃত জিনিশের পরিমাণ কম। তবে, এবিষয়ে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করার মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে



আমাদের ফেসবুক পেজ
ব্রেকিং নিউজ