বুধবার, ১৫ জুন ২০২২, ১০:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
সাংবাদিক নোমানীর ওপর হামলার প্রতিবাদে বরিশালে মানববন্ধন গলাচিপা কৃষি আবহাওয়া তথ্য সেবা বিষয়ক রোভিং সেমিনার নবীজিকে কটুক্তি করার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেন বরিশাল পূর্বাঞ্চলীয় ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ। চরফ্যাশনে চর মাদ্রাজ ৪ নং ওয়ার্ডের রাসেল দেওয়ানের ফুটবল মার্কার উঠান বৈঠক। চট্টগ্রামে ২ মাদক পাচারকারী আটক ফরিদপুরের নিখোঁজ মুসলিম প্রেমিকাসহ হিন্দু যুবক আবাসিক হোটেলে! ভোলা চরফ্যাশনে বিশ্ব নবীকে কে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করার প্রতিবাদে ওলামা ও আইম্যা ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।। গলাচিপায় বিরল প্রজাতির বন্যপ্রাণী তক্ষক সহ আটক -১ নারী শ্রমিককে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওমর সানীকে গুলি করার হুমকি দেন বলে অভিযোগ

গাজায় ইসরায়েলি ড্রোন ভূপাতিতের দাবি ফিলিস্তিনের

গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের একটি ড্রোন ভূপাতিত করার দাবি করছে ফিলিস্তিন। বুধবার সংবাদ মাধ্যম নিউ প্রেস জানায়, উত্তর গাজার তুবাস অঞ্চলে আল-ফারিয়া শরণার্থী শিবির থেকে ড্রোনটি ভূপাতিত করা হয়। এ অভিযানে অংশ নেয় শরণার্থী শিবিরের ফিলিস্তিনি তরুণরা। এদিকে ইসরায়েল সেনাবাহিনীও আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের একটি ড্রোন খোয়া যাওয়ার কথা স্বীকার করেছে। যদিও তারা বলছে, তুবাস এলাকায় এক অভিযানের সময় কারিগরি সমস্যার কারণে ভূপাতিত হয়েছে ড্রোনটি।

এর আগে মঙ্গলবার ফিলিস্তিনি সূত্রগুলো উত্তর গাজায় ইসরাইলের আরেকটি ড্রোনের ধ্বংসাবশেষ খুঁজে পাওয়ার কথা জানিয়েছে। ড্রোনটি ছিল স্কাই লার্ক মডেলের। এই মডেলের ড্রোনের সাহায্যে সাধারণত গোয়েন্দা তৎপরতা চালানো হয়। এই ড্রোন আকাশে উড়ার সময় কোনো শব্দ তৈরি করে না। ফলে এর উপস্থিতি সহজে টের পাওয়া যায় না।

এদিকে গত ২ জুলাই ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল। তবে এতে হতাহতের কোনও খবর পাওয়া যানি। চলতি বছরের মে মাসে হওয়া যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে এ নিয়ে তিনবার বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল।

ইসরায়েলি বাহিনীর দাবি, গাজা থেকে তাদের দিকে বিস্ফোরকভর্তি বেলুন ছোড়া হয়েছিল। জবাবে হামাসের অস্ত্রাগারে হামলা চালায় তারা। ইসরায়েলের দাবি, হামলার স্থানে হামাস নিজেদের অস্ত্রের উন্নয়ন ও গবেষণা করত।

মে মাসের যুদ্ধবিরতির পর গত জুনে দুইবার বিমান হামলা চালিয়েছিল ইসরায়েলি বাহিনী। তখনও ইসরায়েলের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছিল হামাসের বেলুন বোমা নিক্ষেপের জবাবে হামলা চালিয়েছে তারা।

নানা ধরনের চাপের মুখে গত ২১ মে শেষ পর্যন্ত মিশরের মধ্যস্ততায় গাজায় বিমান হামলা বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছিল ইসরায়েলের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু। কিন্তু সেই যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করে বারবার গাজায় বিমান হামলা চালাচ্ছে ইসরায়েলি বাহিনী।

যদিও এরই মধ্যে ইসরায়েলে পরিবর্তন হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর পদ। কিন্তু থেমে নেই ফিলিস্তিনিদের ওপর বর্বরতা। সুতরাং প্রধানমন্ত্রীত্বের বদল হলেও বদলায়নি ইসরায়েলি নীতি।

গত ১০ থেকে ২১ মে পর্যন্ত টানা ১১ দিনের সংঘাতে প্রায় ২৫৬ ফিলিস্তিনি নিহত হয়। এর মধ্যে ৬৬ জনই শিশু। অপরদিকে দুই হাজারের বেশি মানুষ আহত হয়েছে। এছাড়া ইসরায়েলে রকেট হামলায় ১২ জন নিহত হয়েছে। তবে হতাহতদের মধ্যে বেশিরভাগই সাধারণ নাগরিক।



আমাদের ফেসবুক পেজ
ব্রেকিং নিউজ