শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০৫:৪০ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
বিশ্ব নদী দিব উপলক্ষে গলাচিপা “নেঙর” আয়োজনে রামনাবাদ নদী পরিদর্শন তালা প্রতীক নিয়ে জনপ্রিয়তার শীর্ষে মাসুদ আলম খান। দক্ষিণ এশিয়া বিজনেস এ্যাওয়ার্ড পেলেন এস.এম জাকির হোসেন এম ভি আল ওয়ালিদ-৯ লঞ্চে সন্তান প্রসব, পরিবারের জন্য আজীবন ভাড়া ফ্রী গলাচিপার কৃতি সন্তান মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি হওয়ায় আনন্দ মিছিল ও বিভিন্ন সংগঠনের অভিনন্দন। রাজৈরে ভোটঘর সোশ্যাল ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং উদ্বোধন মুন্সীগঞ্জে পুলিশের উপর হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মানিকগঞ্জে শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা চাঁদমারিতে সংঘাত-রক্তপাত, বেপরোয়া আলামিন বাহিনীর বিরুদ্ধে তিন মামলা জেলা পরিষদ নির্বাচনে কামরুলকে প্রার্থী করতে ইউপি সদস্যদের জোট

বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে বিএনপি নেত্রীর ট্রল, তীব্র সমালোচনা

নারায়ণগঞ্জ মহানগর মহিলা দলের নেত্রী দিলারা মাসুদ ময়নার বিরুদ্ধে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে চরম বিতর্কিত ট্রল করার অভিযোগ উঠেছে। নিজের ফেসবুক আইডি থেকে এই পোস্ট দেওয়ার পর থেকেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এ নিয়ে শুরু হয় সমালোচনার ঝড়।

বুধবার দুপুরে শেয়ার করা ওই পোস্টে দিলারা মাসুদ ময়না পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী জুলফিকার আলী ভুট্টোর সাথে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও নিহত সাবেক পাকিস্তানি নেত্রী বেনজির ভুট্টোর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি দিয়ে ট্রল করেন। সেখানে বঙ্গবন্ধুকে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান ও প্রধানমন্ত্রীর ছবিকে বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নাম লিখে ট্রল করা হয়। বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে এ নিয়ে তুমুল সমালোচনা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন সরকারদলীয়রা।

এ নিয়ে জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাহাবুব হোসেন জানিয়েছেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এমন দুঃসাহস দেখানো সত্যিই বিস্ময়কর। বিশেষ করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ও দেশের প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে এমন ট্রল করার কারণে তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনেই ব্যবস্থা নেয়া যায়।

মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ নিজাম উদ্দিন জানিয়েছেন, বিএনপি নেত্রী ময়না স্থানীয় এক আওয়ামী লীগ নেত্রীর অতি আপনজন  হিসেবেই পরিচিত। ওই আওয়ামী লীগ নেত্রীর আশ্রয়-প্রশ্রয়েই তিনি এমন দুঃসাহস দেখাতে পেরেছেন। আমরা বিষয়টি নিয়ে আইনি ব্যবস্থায় যাব।

মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান রিয়াদ ও সাধারণ সম্পাদক হাসনাত রহমান বিন্দু জানিয়েছেন, দিলারা মাসুদ ময়না ও তার স্বামী মাসুদ পদবিধারী ও বিএনপির সক্রিয় রাজনীতি করলেও স্থানীয় এক প্রভাবশালী আওয়ামী লীগের জনপ্রতিনিধির খুবই ঘনিষ্ঠভাজন হিসেবে পরিচিত। ময়না তার ফেসবুক আইডিতে ওই সরকারদলীয় জনপ্রতিনিধিকে নিয়ে শত শত পজিটিভ পোস্ট শেয়ার করেছেন। আমরা দলের স্বার্থে সব কিছু নিয়ে আপস  করলেও বঙ্গবন্ধু ও নেত্রীকে নিয়ে আপস  করতে শিখিনি। এ ব্যাপারে সিনিয়র ও মূল দলের নেতাদের সঙ্গে আমরা অবশ্যই আলোচনা করব, প্রয়োজনে ছাত্রলীগ আইনি পদক্ষেপ নেবে।

এদিকে যার বিরুদ্ধে এ অভিযোগ সেই বিএনপি নেত্রী দিলারা মাসুদ ময়নার সঙ্গে এ ব্যাপারে যোগাযোগ করলে তিনি গণমাধ্যমে এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করবেন না বলে জানান।



আমাদের ফেসবুক পেজ
ব্রেকিং নিউজ