সোমবার, ১০ অক্টোবর ২০২২, ০৬:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
বিশ্ব নদী দিব উপলক্ষে গলাচিপা “নেঙর” আয়োজনে রামনাবাদ নদী পরিদর্শন তালা প্রতীক নিয়ে জনপ্রিয়তার শীর্ষে মাসুদ আলম খান। দক্ষিণ এশিয়া বিজনেস এ্যাওয়ার্ড পেলেন এস.এম জাকির হোসেন এম ভি আল ওয়ালিদ-৯ লঞ্চে সন্তান প্রসব, পরিবারের জন্য আজীবন ভাড়া ফ্রী গলাচিপার কৃতি সন্তান মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি হওয়ায় আনন্দ মিছিল ও বিভিন্ন সংগঠনের অভিনন্দন। রাজৈরে ভোটঘর সোশ্যাল ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং উদ্বোধন মুন্সীগঞ্জে পুলিশের উপর হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মানিকগঞ্জে শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা চাঁদমারিতে সংঘাত-রক্তপাত, বেপরোয়া আলামিন বাহিনীর বিরুদ্ধে তিন মামলা জেলা পরিষদ নির্বাচনে কামরুলকে প্রার্থী করতে ইউপি সদস্যদের জোট

বাকেরগঞ্জ পাদ্রীশিবপুর ইউনিয়নের তহশীলদার রেজাউল করিমের বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ।।

 

নজরুল ইসলাম আলীমঃ
বাকেরগঞ্জ উপজেলার ১৩ নং পাদ্রীশিবপুর ইউনিয়নের তহশীলদার মোঃ রেজাউল করিমের বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।আদালত সূত্রে জানা যায় যে,বাকেরগঞ্জ উপজেলার ১৩ নং পাদ্রীশিবপুর ইউনিয়নের শাকবুনিয়া নিবাসী মোঃ কাশেম হাওলাদারের পুত্র আব্দুর রব হাওলাদারের সথে বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ থানার শাকবুনিয়া মৌজার জে,এল নং-১৯,এস,এ খতিয়ান নং-১৩২,দাগ নং-৬৪/৬৮ এর মোট ৪০ শতাংশ ভোগদখলীয় ও রেকর্ডীয় সম্পত্তি নিয়ে একই সাকিনের মৃত শামছুল হক মাওলানার পুত্র মোঃমাছুম মাওলানা ও মোঃ ছিদ্দিকুর রহমানদের সাথে বিরোধ থাকার কারণে ভুক্তভোগী আব্দুর রব হাওলাদার বিগত ইং ২৭/১২/২০২১ ইং তারিখে মোকাম বরিশাল বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ফৌজদারী কার্যবিধি আইনের ১৪৪/১৪৫ ধারায় মৃত শামসুল হক মাওলানার পুত্র মোঃ মাছুম মাওলানা ও মোঃ সছিদ্দিকুর রহমানকে বিবাদী করে এমপি-৩২৩/২০২১(বাকেরগঞ্জ) মোকদ্দমা দায়ের করিলে বিজ্ঞ আদালত ওসি বাকেরগঞ্জ থানাকে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখা সহ সহকারী কমিশনার (ভূমি) বাকেরগঞ্জকে সরেজমিনে তদন্তের আদেশ দিলে তিনি উক্ত বিজ্ঞ আদালতের আদেশের অনুবলে পাদ্রীশিবপুর ইউনিয়নের উপ-সহকারী ভূমি কর্মকর্তাকে সরেজমিনে তদন্তের নির্দেশ দিলে তিনি উক্ত নির্দেশ বলে বাদীর রেকর্ডীয় তফসিল ভুক্ত সম্পত্তিতে তদন্তে গিয়ে বাদীকে তার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সহকারে তার কার্যালয়ে দেখা করতে বললে বাদী তার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সহকারে তার কার্যালয়ে গেলে উক্ত তদন্তকারী কর্মকর্তা রেকর্ড পত্রাদি দেখে তার পক্ষে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করবে বলে ৫ হাজার টাকা ঘুষ দাবী করিলে বাদী একজন নিতান্ত গরীব ও রাজমিস্ত্রি হওয়ার কারণে অনুনয় বিনয় করিয়া উক্ত তদন্তকারী কর্মকর্তা মোঃ রেজাউল করিমকে ১হাজার টাকা প্রদান করিলে তদন্তকারী কর্মকর্তা তার দাবিকৃত বাকি ঘুষের টাকা না পেয়ে বিজ্ঞ আদালতের প্রেরণকৃত বিগত ইং ০৬/০৩/২০২২ তারিখের স্মারন নং-৩৩ পাদ্রী/২২ এ তদন্ত প্রতিবেদনের লেখেন ” উপর্যুক্ত বিষয়ের আলোকে মহোদয়ের নির্দেশে বরিশালের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের ৩২৩/২০২১ নং এম,পি মামলার বাদী কর্তৃক অভিযোগের বিষয়ে আমি ক্ষমতা প্রাপ্ত হইয়া সরেজমিনে তদন্ত করি।রেকর্ড পত্র পর্যালোচনায় দেখা যায় যে,অত্র উপজেলাধীন জে,এল নং-১৯ শাকবুনিয়া মৌজায় এস,এ-১৩২ নং খতিয়ানের রেকর্ডীয় মালিক কালু হিং ১্ অংশের মালিক।৫৪ সহ ৯টি দাগের জমির পরিমাণ ২.৭৮ একর দেখা যায়। বাদীর বক্তব্যঃজে, এল নং-১৯ শাকবুনিয়া মৌজায় এস,এ-১৩২ নং খতিয়ানের রেকর্ডীয় মালিক কালু হাওলাদারের মৃত্যুতে ওয়ারীশ ২ ছেলে ২ মেয়ে এদের মধ্যে ১ ছেলে
কাছেম হাওলাদারের মৃত্যুতে ওয়ারীশ সূত্রে বাদীসহ অন্যান্য ওয়ারীশগন .২৬৬৬ একর জমির মালিক হয়ে নামজারী ও জমাখারিজ করে নতুন ৩৮৫ নং খতিয়ান খুলে ভোগ দখলে আছে।বিবাদীর বক্তব্যঃজে,এল নং-১৯ শাকবুনিয়া মৌজায় এস,এ-১৩২ নং খতিয়ানের রেকর্ডীয় মালিক কালু হাওলাদারের ২ ছেলে ২ মেয়ে এদের মধ্যে এক ছেলে মাওলানা মোঃশামছুল হকের মৃত্যুতে ওয়ারীশ বিবাদীগন প্রাপ্ত হয় এবং বাদীর পিতা কাছেম হাওলাদারের থেকে ইং ০৬/০৬/১৯৯৯ তারিখে ২৮৭০ নং দলিলে ১৪ শতাংশ এবং অন্যান্য ওয়ারীশদের নিকট থেকে খরিদ সূত্রে মালিক হয়ে সরজমিনে ভোগদখলে আছে।অত্র মোকদ্দমার বাদীর পিতা কাছেম হাওলাদার বিবাদীকে বিকৃত জমি দখল বুঝিয়ে দেয়। সে মর্মে বাদী-বিবাদীকে পাকা ঘর নির্মাণ করিয়া দেন। সার্বিক মন্তব্য কলামের তদন্তকারী কর্মকর্তা লেখেন বাদী ৬৪ নং দাগে বিবাদী ৬৮ নং দাগে সরজমিনে ভোগ দখলে আছে”।বাদী আব্দুর রব হাওলাদার আরো অভিযোগ করে জানান তিনি শুধু ৬৪ নং দাগেই নয় বরং ৬৮ নং দাগে ও ভোগ দখলে আছেন।ভুক্তভোগী বাদী আরো অভিযোগ করে জানান তদন্তকারী কর্মকর্তা মোঃ রেজাউল করিম তার দাবিকৃত আংশিক ঘুষের টাকা গ্রহণ করিয়া বিবাদীদের দ্বারা মোটা অঙ্কের ঘুষ গ্রহণ করিয়া বাদীর রেকর্ডীয় ও ভোগ দখলীয় ৬৮ নং দাগটি বিবাদীদের ভোগ দখলে আছে মর্মে বিজ্ঞ আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন। যাহা মামলার বাদী আব্দুর রব হাওলাদারের এক অপূরণীয় ক্ষতির কারণ হয়েছে বলে জানান।তিনি উক্ত তদন্ত প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে আগামী ধার্য তারিখে নারাজি দরখাস্ত করবেন বলে জানান। ভুক্তভোগী আব্দুর রব হাওলাদার আরো জানান, তিনি সহ তাঁর পরিবারবর্গ উক্ত মোকাদ্দমার কারনে বর্তমানে বিবাদী ও বিবাদীদের দলীয় লোকদের ভয়ে প্রাণনাশের আশঙ্কায় শঙ্কিত। তাই তার নিরাপত্তার জন্য তিনি র‌্যাব,পুলিশ, ডিবি সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেন।



আমাদের ফেসবুক পেজ
ব্রেকিং নিউজ