বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ০২:২০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
বিশ্ব নদী দিব উপলক্ষে গলাচিপা “নেঙর” আয়োজনে রামনাবাদ নদী পরিদর্শন তালা প্রতীক নিয়ে জনপ্রিয়তার শীর্ষে মাসুদ আলম খান। দক্ষিণ এশিয়া বিজনেস এ্যাওয়ার্ড পেলেন এস.এম জাকির হোসেন এম ভি আল ওয়ালিদ-৯ লঞ্চে সন্তান প্রসব, পরিবারের জন্য আজীবন ভাড়া ফ্রী গলাচিপার কৃতি সন্তান মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি হওয়ায় আনন্দ মিছিল ও বিভিন্ন সংগঠনের অভিনন্দন। রাজৈরে ভোটঘর সোশ্যাল ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং উদ্বোধন মুন্সীগঞ্জে পুলিশের উপর হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মানিকগঞ্জে শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা চাঁদমারিতে সংঘাত-রক্তপাত, বেপরোয়া আলামিন বাহিনীর বিরুদ্ধে তিন মামলা জেলা পরিষদ নির্বাচনে কামরুলকে প্রার্থী করতে ইউপি সদস্যদের জোট

ভোটে নৌকা প্রার্থীর বিরোধীতা করায় বৃদ্ধকে কান ধরিয়ে ওঠবস!

বরগুনার আমতলী উপজেলায় এক বৃদ্ধকে প্রকাশ্যে কান ধরে ওঠবস করানোর একটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। এই ঘটনায় ওই বৃদ্ধ থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। অভিযোগে তিনি জানান, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার বিরোধিতা করায় তাকে এভাবে অপদস্ত করা হয়েছে।

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ আলম হাওলাদার সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়ে বলেন, বুধবার রাতে ওই বৃদ্ধ থানায় অভিযোগ নিয়ে আসেন।

এর আগে ঘটনাটি  ঘটেছে আমতলীর চাওড়া ইউনিয়নে গত মঙ্গলবার (২২ জুন) সন্ধ্যায়।

লিখিত অভিযোগে ওই বৃদ্ধ সাংবাদিকদের জানান, নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী আকতারুজ্জামান খান বাদলের কর্মী ও সমর্থকরা পরাজিত স্বতন্ত্র প্রার্থী মহসিন মিয়ার সমর্থকদের মারধর ও বসতবাড়িতে ভাঙচুর চালান। তারা ওই বৃদ্ধের ঘরও ভাঙচুর করেন। পরে তাকে ঘর থেকে টেনেহিঁচড়ে বাইরে নিয়ে যান।

ওই বৃদ্ধ বলেন, ‘ঘরে ভাঙচুরের পর তারা আমার ভাইয়ের স্ত্রী, পুত্রবধূ, নাতি-নাতনিদের সামনে আমাকে মারধর করেন, কান ধরিয়ে ওঠবস করায়। এতে আমার ছেলেবউ ও ভাইয়ের বউ বাধা দিলে তাদেরও মারধর করে। পরে ঘরের শোকেস ও আলমারি ভেঙে ১৮ হাজার টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে যায়।’

হামলাকারীদের মধ্যে রাশেদুল, মনিরুল, মিরাজ এবং ইলিয়াসকে তিনি শনাক্ত করতে পেরেছেন।

এ বিষয়ে পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী মহসিন হাওলাদার সাংবাদিকদের বলেন, ‘নির্বাচনে একাধিক প্রার্থী অংশ নেবে এবং জয়-পরাজয় থাকবে। তাই বলে পরাজিত প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের এভাবে লাঞ্ছিত, মারধর ও বাড়িঘর ভাঙচুর করবে, এটা মেনে নেওয়া যায় না।’

তিনি বলেন, বৃদ্ধ লোকটির সঙ্গে যা ঘটেছে, তা লজ্জাজনক ও ন্যক্কারজনক।

তিনি আরও অভিযোগ করেন, নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর থেকেই আখতারুজ্জামানের সমর্থকরা প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের বাড়িতে গিয়ে হামলা ও ভাঙচুর শুরু করেছেন। এ ঘটনায় আমতলী থানা পুলিশের ওসিকে অবহিত করা হলেও এখন পর্যন্ত কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামান সাংবাদিকদের বলেন, ‘নির্বাচনে হেরে গিয়ে মহসিন হাওলাদার আমার কর্মী-সমর্থকদের ফাঁসানোর চেষ্টা করছেন।’

আমতলী থানা পুলিশৈর ওসি শাহ আলম হাওলাদার সাংবাদিকদের বলেন, ‘এ ঘটনায় এখনও কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ধরতে অভিযান চলছে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ওই ইউনিয়নে পুলিশ মোতায়ন রয়েছে।’



আমাদের ফেসবুক পেজ
ব্রেকিং নিউজ