শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০৭:২১ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
বিশ্ব নদী দিব উপলক্ষে গলাচিপা “নেঙর” আয়োজনে রামনাবাদ নদী পরিদর্শন তালা প্রতীক নিয়ে জনপ্রিয়তার শীর্ষে মাসুদ আলম খান। দক্ষিণ এশিয়া বিজনেস এ্যাওয়ার্ড পেলেন এস.এম জাকির হোসেন এম ভি আল ওয়ালিদ-৯ লঞ্চে সন্তান প্রসব, পরিবারের জন্য আজীবন ভাড়া ফ্রী গলাচিপার কৃতি সন্তান মহানগর দক্ষিণ স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি হওয়ায় আনন্দ মিছিল ও বিভিন্ন সংগঠনের অভিনন্দন। রাজৈরে ভোটঘর সোশ্যাল ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং উদ্বোধন মুন্সীগঞ্জে পুলিশের উপর হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মানিকগঞ্জে শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা চাঁদমারিতে সংঘাত-রক্তপাত, বেপরোয়া আলামিন বাহিনীর বিরুদ্ধে তিন মামলা জেলা পরিষদ নির্বাচনে কামরুলকে প্রার্থী করতে ইউপি সদস্যদের জোট

মাদারীপুরে কৃষক লীগ নেতা মানিক সরদার হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

কৃষকলীগ নেতা মানিক সরদারকে হত্যাকারীদের ফাসির দাবিতে রোববার (২০ মার্চ) মাদারীপুরে এক মানববন্ধন করেছে উপজেলা কৃষকলীগ ও আলীনগর ইউনিয়নবাসী। গত ৭ই ফেব্রুয়ারী কালকিনি উপজেলার ফাঁসিয়াতলা বাজারের কাছে মানিক সরদার (৫০) নামের এক কৃষকলীগ নেতাকে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। নিহত মানিক সরদার একই এলাকার আলমগীর সরদারের ছেলে। কালকিনি উপজেলা কৃষকলীগের কৃষক বিষয়ক সম্পাদক ছিলেন তিনি। মানববন্ধনে দীর্ঘদিন ধরে আসামিরা প্রকাশ্যে ঘুড়ে বেড়ালেও থানা পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করে না বলেও অভিযোগ তুলেন নিহত মানিক সরদারের স্ত্রী খানম। আসামিরা সবাই নাকি হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়ে এসেছে। এত বড় একটা হত্যা হলো, অথচ দুজন আসামি ছাড়া কেউ আর গ্রেপ্তার হলো না বলেও ক্ষোভ প্রকাশ করেন তার স্ত্রী। মাদারীপুরের কালকিনিতে কৃষক লীগ নেতা মানিক সরদার হত্যা মামলায় আসামিদের গ্রেপ্তার ও দ্রুত বিচারের দাবিতে মানববন্ধন ও সড়ক অবরোধ করেছে স্বজন ও এলাকাবাসী।
মাদারীপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সামনে রোববার (২০ মার্চ) বেলা ১১টার দিকে মানববন্ধন করেন তারা। এরপর মাদারীপুর-শরীয়তপুর শেখ হাসিনা সড়ক অবরোধ করেন তারা। গত ৭ ফেব্রুয়ারি কালকিনি উপজেলা কৃষক লীগের কৃষিবিষয়ক সম্পাদক মানিক সরদারকে ডেকে নিয়ে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ ওঠে আলীনগর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান ওরফে মিলন সরদারের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় দুই দিন পরে হাফিজুরকে প্রধান আসামি করে ১৭ জনের নামে কালকিনি থানায় একটি হত্যা মামলা করেন নিহতের স্ত্রী সীমা খানম। মামলার পর দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।
কালকিনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইশতিয়াক আসফাক রাসেল বলেন, ‘আসামিরা প্রায় সবাই হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়ে এসেছেন। জামিন ছাড়া যারা আছেন, সে রকম দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তারা বর্তমানে জেল-হাজতে আছেন। ‘এরপরও মামলার অগ্রগতি জেলার গোয়েন্দা পুলিশ তদারকি করছে। আমরাও থানা থেকে তাদের সহযোগিতা করছি। পুলিশের কোনো গাফিলতি নেই।’



আমাদের ফেসবুক পেজ
ব্রেকিং নিউজ