শনিবার, ২০ অগাস্ট ২০২২, ০৭:৫৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের ৪২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী আঁড়িয়াল খা ও কুমার নদে অবৈধভাবে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলনের দায়ে ৯ জনের কারাদণ্ড নওগাঁর মান্দায় সাজাপাপ্ত বিভিন্ন মামলার ১২ আসামি গ্রেপ্তার ডাসারে দৈনিক আলোকিত প্রতিদিন পত্রিকার প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালন ফুলপুরে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে আওয়ামী লীগের বিক্ষোভ মিছিল। নওগাঁর আত্রাই রেস্তোরাঁ ও কসমেটিকস দোকানকে ২০হাজার টাকা জরিমানা বিরামপুরে নানা কর্মসূচীর মধ্য দিয়ে যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতীয় শোক দিবস পালিত মধুপুরের মহিষমারা নেদুর বাজারে চক্ষু ক্যাম্প অনুষ্ঠিত উপকূলে জলোচ্ছ্বাস, সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সংকেত বন্ধুর মাথায় ডিম ভেঙে জন্মদিন পালন, আটক ৬

মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নের চেয়ে মানুষের জীবন বাঁচানো জরুরি

করোনায় কর্মহীন পরিবারগুলো মারাত্মক অর্থ সংকটে পড়েছে উল্লেখ করে জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা গোলাম মোহাম্মদ (জিএম) কাদের বলেছেন, ‘বাজেট তৈরি হয় দেশের জনগণের ট্যাক্সের টাকায়। এ টাকার মালিক দেশের জনগণ। তাই সেখান থেকে টাকা দিতে হবে। তাহলে মানুষ বাঁচবে। লকডাউনও সফল হবে। মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নের চেয়ে মানুষের জীবন বাঁচানো জরুরি।’

বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) দুপুরে রাজধানীর মোহাম্মদপুর জাকির হোসেন রোড মাঠে জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দুস্থদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ ও দোয়া মাহফিলের উদ্বোধন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

জিএম কাদের বলেন, ‘লকডাউন সফল হয়নি, করোনার সংক্রমণ বেড়েছে, বেড়েছে মৃত্যুর হারও। দারিদ্রের কশাঘাত থেকে দরিদ্রদের বাঁচাতে সরকারকে পরিবার প্রতি অন্তত ১০ হাজার টাকা করে দিত হবে।’

তিনি বলেন, ‘৬ লাখ কোটি টাকার বিশাল বাজেট আমাদের। বড় বড় মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন হচ্ছে দেশে। কিন্ত করোনায় কর্মহীন পরিবারগুলো মারাত্মক অর্থ সংকটে পড়েছে। এক বছর আগেই আমরা বলেছিলাম লকডাউন দেয়ার আগে মানুষের খাবার, অষুধ এবং জরুরি নিত্যপণ্য নিশ্চিত করতে হবে। এ ছাড়া কখনোই লকডাউন সফল হবে না।’

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, ‘করোনা মোকাবিলায় যখন ২৬ থেকে ২৮ কোটি টিকা প্রয়োজন, সেখানে শুধু ঘোষণা আসছে ৫ থেকে ১০ লাখ টিকা আসছে।’

জিএম কাদের বলেন, ‘উন্নত বিশ্ব যখন করোনার টিকা দিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরছে, তখনও আমরা জানি না কখন দেশের সবাই টিকা পাবে। দেশের প্রতিটি মানুষকে টিকা দিতে হবে। যেভাবে টিকা দেয়ার কথা সরকারিভাবে বলা হচ্ছে, তাতে ৫ থেকে ৬ বছর লেগে যেতে পারে। আবার ১০ বছরও লেগে যেতে পারে। তাতে পরিস্থিতি মারাত্মক হয়ে যাবে। সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে আর মাস্ক ব্যবহার করেই করোনা মোকাবিলা সম্ভব হবে না।’

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ঢাকা মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক মো. শফিকুল ইসলাম সেন্টুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন পার্টি চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা আমানত হোসেন আমানত, ভাইস চেয়ারম্যান মো. জাহাঙ্গীর আলম পাঠান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাখন সরকার, যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক জাকির হোসেন মৃধা প্রমুখ।



আমাদের ফেসবুক পেজ
ব্রেকিং নিউজ