শুক্রবার, ১৭ জুন ২০২২, ১১:২৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
কালকিনিতে ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে হামলায় ১০টি বসতবাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ পদ্মা সেতুতে গাড়ি নিয়ে প্রতিযোগিতা না করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর সাংবাদিক নোমানীর ওপর হামলার প্রতিবাদে বরিশালে মানববন্ধন গলাচিপা কৃষি আবহাওয়া তথ্য সেবা বিষয়ক রোভিং সেমিনার নবীজিকে কটুক্তি করার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেন বরিশাল পূর্বাঞ্চলীয় ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ। চরফ্যাশনে চর মাদ্রাজ ৪ নং ওয়ার্ডের রাসেল দেওয়ানের ফুটবল মার্কার উঠান বৈঠক। চট্টগ্রামে ২ মাদক পাচারকারী আটক ফরিদপুরের নিখোঁজ মুসলিম প্রেমিকাসহ হিন্দু যুবক আবাসিক হোটেলে! ভোলা চরফ্যাশনে বিশ্ব নবীকে কে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করার প্রতিবাদে ওলামা ও আইম্যা ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।। গলাচিপায় বিরল প্রজাতির বন্যপ্রাণী তক্ষক সহ আটক -১

সন্ত্রাসীদের গুলিতে মারা গেল বাবার কোলে থাকা ৪ বছরের তাসফিয়া

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় সন্ত্রাসীদের গুলিতে জান্নাতুল ফেরদাউস তাসফিয়া (৪) নামের এক শিশু নিহত হয়েছে। শিশুটি তার বাবার কোলে ছিল।

এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছেন শিশুটির বাবা প্রবাসী মাওলানা আবু জাহের (৩৮)। এ ঘটনায় জড়িত থাকা সন্দেহে ধনু মিয়া নামের একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ঢাকা নেওয়ার পথে মারা যায় শিশু তাসফিয়া। আহত মাওলানা আবু জাহেরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তারা দুইজন পূর্ব হাজীপুর গ্রামের বাসিন্দা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কিছুদিন আগে হাজীপুর ইউপির ৮নং ওয়ার্ড পূর্ব হাজীপুর গ্রামের রাশেদ মিয়ার বাড়ির মো. আলম তার একটি জমির মাটি বিক্রি করেন পার্শ্ববর্তী দুর্গাপুর ইউনিয়নে লক্ষ্মীনারায়ণপুর গ্রামের মো. বাদশার কাছে। কয়েকদিন ধরে ওই জমি থেকে মাটি কেটে নেন বাদশা। যে পরিমাণ মাটি কাটার কথা ছিল তার চেয়ে বেশি মাটি কেটে নেয় বাদশা।

এনিয়ে তাকে বাধা দিলে সোমবার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী নিয়ে আলমদের ওপর হামলা চালায় বাদশা। এ সময় তাকে বাধা দিতে আসলে আলমের ভাই ফিরোজের অন্তঃসত্ত্বা মেয়ের পেটে লাথি মেরে জখম করে সন্ত্রাসীরা। এরপরও সন্ত্রাসী নিয়ে আলমদের ওপর একাধিকবার হামলা চালায় বাদশা।

স্থানীয়রা আরও জানায়, অতিরিক্ত মাটি কাটাতে বাধা দেওয়ার জেরে বুধবার বিকাল ৪টার দিকে ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী মহিন, রিমন, আকবর, নাঈমকে নিয়ে আলমদের বাড়িতে হামলা করতে আসে বাদশা। এ সময় সন্ত্রাসীরা মালেকার বাপের দোকানে এসে আলমদের বাড়ির লোকজনকে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি গুলি ছুঁড়তে থাকে।

ওই বাজারের একটি দোকান থেকে মেয়ে তাসফিয়াকে জুস কিনে দিয়ে বের হওয়ার সময় গুলিবিদ্ধ হন তাসফিয়া ও মাওলানা আবু জাহেরসহ কয়েকজন। পরে স্থানীয় লোকজন মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করে তাসফিয়া ও আবু জাহেরকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাদের অবস্থার অবনতি ঘটলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের ঢাকা স্থানান্তর করেন। ঢাকা নেওয়ার পথে কুমিল্লা পৌঁছলে মারা যায় শিশু তাসফিয়া।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, বিকাল ৫টার দিকে তাদের দুইজনকে হাসপাতালে আনা হয়। দুইজনের শরীরে একাধিক গুলি লেগেছিল। যার মধ্যে শিশু তাসফিয়ার মুখ-মাথাসহ শরীরের একাধিকস্থানে গুলি লাগে।

বেগমগঞ্জ মডেল থানার ওসি মীর জাহেদুল হক রনি ঘটনাটি নিশ্চিত করে বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ঘটনায় জড়িত থাকা সন্দেহে ধনু নামে একজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়। অভিযুক্তদের গ্রেফতারে অভিযান চালানো হচ্ছে বলেও জানান তিনি।



আমাদের ফেসবুক পেজ
ব্রেকিং নিউজ