ঢাকা ০৯:৩৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আনন্দ মিছিলে বোমা হামলা

মাদারীপুর প্রতিনিধি :
  • আপডেট সময় : ১০:৩১:৪৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জানুয়ারী ২০২৪ ৬০ বার পড়া হয়েছে
সময়কাল এর সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মাদারীপুর-৩ আসনে স্বতন্ত্রের জয়, কয়েক যুগ পরে আসন হারালো নৌকা
মাদারীপুরে আনন্দ মিছিলে বোমা হামলা, নৌকার সমর্থকদের বাড়িঘর ভাঙচুড়, আহত ৫

মাদারীপুরের কালকিনির ফাঁসিয়াতলা বাজারে সোমবার সকাল সাড়ে নয় টার দিকে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকরা বিজয় উল্লাস করতে থাকে তখন সেই বিজয় উল্লাসে হামলা চালায় প্রতিপক্ষ। এ সময় ককটেল বোমা বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এ ঘটনায় আহত হয়েছে ৬ জন। ভুক্তভোগীদের দাবি হামলাকারীরা নৌকার সমর্থক ছিল। অন্যদিকে একই সময়ে কালকিনি পৌরসভার চর ঠেঙ্গামারা এলাকায় নৌকার সমর্থন করায় ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদকের বাড়িসহ বেদে পল্লীর অন্তত ২০টি বাড়িঘরে ভাঙচুড় ও লুটপাটের অভিযোগ বিজয়ী স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়ার আশ^াস পুলিশের।
জানা যায়, সোমবার সকালে মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার ফাসিয়াতলা বাজারে বিজয় উল্লাস করতেছিল বিজয়ী স্বতন্ত্র প্রার্থী মোসা তাহমিনা বেগমের (ঈগল) লোকজন। সেই উল্লাস মিছিলে ককটেল বোমা নিক্ষেপ করে একটি পক্ষ। স্থানীয়দের দাবি হামলাকারীরা নৌকার সমর্থক ছিল। এ ঘটনায় ৬ জন আহত হয়। আহতরা হলেন আলীনগর ইউনিয়নের ফাঁসিয়া তলা গ্রামের ফজর আলী সরদারের ছেলে ইমারত সরদার (৪০), ইসলাম সরদারের ছেলে শামীম সরদার (৩০) ,টুমচর গ্রামের শাহ আলম মিয়ার ছেলে ইশরাক (১৬), মীরা কান্দি গ্রামের শাহজাহান ফকিরের ছেলে রুবেল ফকির(৩০), কালাইপুর গ্রামের আতাহার মৃধার ছেলে আবু বক্কর (৩০),আলীনগর গ্রামের বিল্লাল মিয়ার ছেলে রফিক মিয়া(৩০)। ইমারত সরদারের অবস্থা আশংকা জনজ হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।
অন্যদিকে কালকিনি পৌরসভার চর ঠেঙ্গামারা এলাকায় নৌকার প্রার্থী ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আব্দুস সোবহান মিয়া গোলাপের সমর্থন করায় ২ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক বাবুল বেপারীর বাড়িসহ বেদে সম্প্রদায়ের অন্তত ২০টি বাড়িঘর ভাঙচুড় ও লুটপাটের অভিযোগ স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে। ভুক্তভোগীদের দাবি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল রানা মিঠু ও ছাত্রলীগ সভাপতি বাকামিনের নেতৃত্বে এ ভাঙচুড় চালানো হয়।
আহত ইমারত সরদারের স্বজনরা জানায়, আনন্দ মিছিলে যারা হামলা করেছে তারা নৌকার সমর্থক ছিল। তারা ছিল স্বতন্ত্র প্রার্থীর লোক। যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে প্রশাসন বলে তাদের দাবি।
কালকিনি পৌরসভা আওয়ামীলীগের ২ নং ওয়ার্ডের সাধারন সম্পাদক বাবুল বেপারী বলেন, তার বাড়িসহ বিশটিরও বেশি বাড়িঘরে ভাঙচুড় লুটপাট করেছে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থক সোহেল রানা মিঠু ও বাকামিনের লোকজন। নৌকার সমর্থন করা যদি অন্যায় হয় তাহলে আরও অবিচার তার উপরে হোক। আর তা না হলে প্রশাসনের কাছে এর সঠিক বিচার দাবি করেন তিনি।
কালকিনি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল রানা মিঠু বলেন, বাড়িঘর ভাঙচুড়ের ঘটনা যখন ঘটে তখন তিনি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ছিলেন। এ ঘটনায় কোনভাবেই তিনি জড়িত না। প্রয়োজন হলে জেলা প্রশাসকের সাথে কথা বলতে পারেন।
এ বিষয়ে কালকিনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি সরকার আল মামুন বলেন, দুটি ঘটনার সংবাদ পেয়ে পুলিশ পাঠানো হয়। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। এ বিষয়ে এখনো কোন অভিযোগ পাইনি, পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

আনন্দ মিছিলে বোমা হামলা

আপডেট সময় : ১০:৩১:৪৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জানুয়ারী ২০২৪

মাদারীপুর-৩ আসনে স্বতন্ত্রের জয়, কয়েক যুগ পরে আসন হারালো নৌকা
মাদারীপুরে আনন্দ মিছিলে বোমা হামলা, নৌকার সমর্থকদের বাড়িঘর ভাঙচুড়, আহত ৫

মাদারীপুরের কালকিনির ফাঁসিয়াতলা বাজারে সোমবার সকাল সাড়ে নয় টার দিকে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকরা বিজয় উল্লাস করতে থাকে তখন সেই বিজয় উল্লাসে হামলা চালায় প্রতিপক্ষ। এ সময় ককটেল বোমা বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এ ঘটনায় আহত হয়েছে ৬ জন। ভুক্তভোগীদের দাবি হামলাকারীরা নৌকার সমর্থক ছিল। অন্যদিকে একই সময়ে কালকিনি পৌরসভার চর ঠেঙ্গামারা এলাকায় নৌকার সমর্থন করায় ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদকের বাড়িসহ বেদে পল্লীর অন্তত ২০টি বাড়িঘরে ভাঙচুড় ও লুটপাটের অভিযোগ বিজয়ী স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়ার আশ^াস পুলিশের।
জানা যায়, সোমবার সকালে মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার ফাসিয়াতলা বাজারে বিজয় উল্লাস করতেছিল বিজয়ী স্বতন্ত্র প্রার্থী মোসা তাহমিনা বেগমের (ঈগল) লোকজন। সেই উল্লাস মিছিলে ককটেল বোমা নিক্ষেপ করে একটি পক্ষ। স্থানীয়দের দাবি হামলাকারীরা নৌকার সমর্থক ছিল। এ ঘটনায় ৬ জন আহত হয়। আহতরা হলেন আলীনগর ইউনিয়নের ফাঁসিয়া তলা গ্রামের ফজর আলী সরদারের ছেলে ইমারত সরদার (৪০), ইসলাম সরদারের ছেলে শামীম সরদার (৩০) ,টুমচর গ্রামের শাহ আলম মিয়ার ছেলে ইশরাক (১৬), মীরা কান্দি গ্রামের শাহজাহান ফকিরের ছেলে রুবেল ফকির(৩০), কালাইপুর গ্রামের আতাহার মৃধার ছেলে আবু বক্কর (৩০),আলীনগর গ্রামের বিল্লাল মিয়ার ছেলে রফিক মিয়া(৩০)। ইমারত সরদারের অবস্থা আশংকা জনজ হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।
অন্যদিকে কালকিনি পৌরসভার চর ঠেঙ্গামারা এলাকায় নৌকার প্রার্থী ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আব্দুস সোবহান মিয়া গোলাপের সমর্থন করায় ২ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক বাবুল বেপারীর বাড়িসহ বেদে সম্প্রদায়ের অন্তত ২০টি বাড়িঘর ভাঙচুড় ও লুটপাটের অভিযোগ স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে। ভুক্তভোগীদের দাবি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল রানা মিঠু ও ছাত্রলীগ সভাপতি বাকামিনের নেতৃত্বে এ ভাঙচুড় চালানো হয়।
আহত ইমারত সরদারের স্বজনরা জানায়, আনন্দ মিছিলে যারা হামলা করেছে তারা নৌকার সমর্থক ছিল। তারা ছিল স্বতন্ত্র প্রার্থীর লোক। যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে প্রশাসন বলে তাদের দাবি।
কালকিনি পৌরসভা আওয়ামীলীগের ২ নং ওয়ার্ডের সাধারন সম্পাদক বাবুল বেপারী বলেন, তার বাড়িসহ বিশটিরও বেশি বাড়িঘরে ভাঙচুড় লুটপাট করেছে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থক সোহেল রানা মিঠু ও বাকামিনের লোকজন। নৌকার সমর্থন করা যদি অন্যায় হয় তাহলে আরও অবিচার তার উপরে হোক। আর তা না হলে প্রশাসনের কাছে এর সঠিক বিচার দাবি করেন তিনি।
কালকিনি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল রানা মিঠু বলেন, বাড়িঘর ভাঙচুড়ের ঘটনা যখন ঘটে তখন তিনি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ছিলেন। এ ঘটনায় কোনভাবেই তিনি জড়িত না। প্রয়োজন হলে জেলা প্রশাসকের সাথে কথা বলতে পারেন।
এ বিষয়ে কালকিনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি সরকার আল মামুন বলেন, দুটি ঘটনার সংবাদ পেয়ে পুলিশ পাঠানো হয়। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। এ বিষয়ে এখনো কোন অভিযোগ পাইনি, পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।