ঢাকা ০৮:২৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গলাচিপায় শুভ জন্মাষ্টমীতে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ও প্রসাদ বিতরণ।

 মিঠুন পাল, (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ১০:৫৫:০৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ৭৭ বার পড়া হয়েছে
সময়কাল এর সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

সনাতন ধর্মের মহাবতার প্রেম ও শান্তির দেবতা-ভগবান শ্রী কৃষ্ণের জন্মতিথি পুরানমতে শুভ জন্মাষ্টমী ভাদ্র মাসের শুক্ল পক্ষের অষ্টমী তিথি মঙ্গলবার দিবাগত রাত্রে শুভ লগ্ন পরায়, গলাচিপা কেন্দ্রীয় কালী মন্দির কমিটির আয়োজনে ৬ সেপ্টেম্বর বুধবার বিকাল ৪টায় শ্রীকৃষ্ণের প্রতিমা বিগ্রহ নিয়ে, কেন্দ্রীয় কালিমন্দির প্রাঙ্গণ থেকে বর্ণাঢ্য বাদ্যযন্ত্র ও শতশত নারী-পুরুষ-ভক্তগণ, কেন্দ্রীয় কালীমন্দির থেকে এক শোভাযাত্রা বের করে। শোভাযাত্রায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মু. শাহীন শাহ, থানা অফিসার ইনচার্জ শোনিত কুমার গায়েণ, আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মস্তফা টিটু, পৌর মেয়র আহসানুল হক তুহিন, জেলা পরিষদ সদস্য মাইনুল ইসলাম রনো, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাডভোকেট ফকরুল ইসলাম মুকুল, প্রেস ক্লাব সভাপতি মু. খালিদ হোসেন মিলটন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তপন কুমার বিশ্বাস, গলাচিপা কেন্দ্রীয় কালীমন্দির কমিটির সভাপতি দিলীপ কুমার বণিক, সাধারণ সম্পাদক তাপস কুমার দত্ত, পৌর কাউন্সিলর সমির কৃষ্ণ পাল, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী শ্যামল কর্মকার, দীপক কর্মকার ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সুজিত দেবনাথ প্রমুখ। শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে সনাতন ধর্মাবলম্বী সকল ভক্তদের প্রতি শুভেচ্ছা ও কৃতজ্ঞতা জানান পটুয়াখালী ১১৩ (৩) গলাচিপা-দশমিনার নির্বাচিত সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এসএম শাহজাদা। এছাড়া জন্মাষ্টমীতে সনাতন ধর্মের বিভিন্ন সংগঠনের ভক্তবৃন্দরা ব্যানার সহ আলাদা আলাদা ভাবে শ্রী শ্রী শ্রীকৃষ্ণের ৫ হাজার ২ শত ৪২তম শুভ জন্মদিনে আনন্দ উদ্দীপনা নিয়ে র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করে।মন্দিরের পুরাহিত বাসুদেব চক্রবর্তী সকল ভক্তদের আর্শিবাদ ও মহাপ্রসাদ বিতরণ করেন। উল্লেখ্য যে, দ্বাপর যুগের শেষ দিকে মহাপুণা তিথিতে মথুরা নগরীতে, অত্যাচারী রাজা কংসের কারাগারে বন্দী শ্রীমতি দেবকী ও বাসুদেবের বেদনাহত ক্রোড়ে জন্ম নেয়-পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণ। সনাতন ধর্মালম্বীদের বিশ্বাস পাশবিক শক্তি যখন ন্যায়নীতি, সত্য ও সুন্দরকে গ্রাস করতে উদ্যত হয়েছিল, তখন সেই অপশক্তিকে, দমন করে মানবজাতিকে কল্যাণ, ন্যায়, প্রেম ও শান্তি প্রতিষ্ঠায় সর্বশেষ দেবতা ভগবান শ্রীকৃষ্ণের আর্বিরভাব ঘটেছিল। দুষ্টের দমন সৃষ্টির লালন করতে, যুগে যুগে ভগবান মানুষের মাঝে অবর্তীন হয় এবং সত্যকে প্রতিষ্ঠা করেন। এছাড়াও ডাকুয়া ইউনিয়নের বাংলাবাজার রাধাকৃষ্ণ মন্দীর কমিটি ও এলাকার ভক্তর, জন্মাষ্টমিতে র্যালি ও প্রসাদ বিতরণ করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

গলাচিপায় শুভ জন্মাষ্টমীতে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা ও প্রসাদ বিতরণ।

আপডেট সময় : ১০:৫৫:০৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩

সনাতন ধর্মের মহাবতার প্রেম ও শান্তির দেবতা-ভগবান শ্রী কৃষ্ণের জন্মতিথি পুরানমতে শুভ জন্মাষ্টমী ভাদ্র মাসের শুক্ল পক্ষের অষ্টমী তিথি মঙ্গলবার দিবাগত রাত্রে শুভ লগ্ন পরায়, গলাচিপা কেন্দ্রীয় কালী মন্দির কমিটির আয়োজনে ৬ সেপ্টেম্বর বুধবার বিকাল ৪টায় শ্রীকৃষ্ণের প্রতিমা বিগ্রহ নিয়ে, কেন্দ্রীয় কালিমন্দির প্রাঙ্গণ থেকে বর্ণাঢ্য বাদ্যযন্ত্র ও শতশত নারী-পুরুষ-ভক্তগণ, কেন্দ্রীয় কালীমন্দির থেকে এক শোভাযাত্রা বের করে। শোভাযাত্রায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মু. শাহীন শাহ, থানা অফিসার ইনচার্জ শোনিত কুমার গায়েণ, আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মস্তফা টিটু, পৌর মেয়র আহসানুল হক তুহিন, জেলা পরিষদ সদস্য মাইনুল ইসলাম রনো, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাডভোকেট ফকরুল ইসলাম মুকুল, প্রেস ক্লাব সভাপতি মু. খালিদ হোসেন মিলটন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তপন কুমার বিশ্বাস, গলাচিপা কেন্দ্রীয় কালীমন্দির কমিটির সভাপতি দিলীপ কুমার বণিক, সাধারণ সম্পাদক তাপস কুমার দত্ত, পৌর কাউন্সিলর সমির কৃষ্ণ পাল, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী শ্যামল কর্মকার, দীপক কর্মকার ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সুজিত দেবনাথ প্রমুখ। শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে সনাতন ধর্মাবলম্বী সকল ভক্তদের প্রতি শুভেচ্ছা ও কৃতজ্ঞতা জানান পটুয়াখালী ১১৩ (৩) গলাচিপা-দশমিনার নির্বাচিত সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এসএম শাহজাদা। এছাড়া জন্মাষ্টমীতে সনাতন ধর্মের বিভিন্ন সংগঠনের ভক্তবৃন্দরা ব্যানার সহ আলাদা আলাদা ভাবে শ্রী শ্রী শ্রীকৃষ্ণের ৫ হাজার ২ শত ৪২তম শুভ জন্মদিনে আনন্দ উদ্দীপনা নিয়ে র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করে।মন্দিরের পুরাহিত বাসুদেব চক্রবর্তী সকল ভক্তদের আর্শিবাদ ও মহাপ্রসাদ বিতরণ করেন। উল্লেখ্য যে, দ্বাপর যুগের শেষ দিকে মহাপুণা তিথিতে মথুরা নগরীতে, অত্যাচারী রাজা কংসের কারাগারে বন্দী শ্রীমতি দেবকী ও বাসুদেবের বেদনাহত ক্রোড়ে জন্ম নেয়-পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণ। সনাতন ধর্মালম্বীদের বিশ্বাস পাশবিক শক্তি যখন ন্যায়নীতি, সত্য ও সুন্দরকে গ্রাস করতে উদ্যত হয়েছিল, তখন সেই অপশক্তিকে, দমন করে মানবজাতিকে কল্যাণ, ন্যায়, প্রেম ও শান্তি প্রতিষ্ঠায় সর্বশেষ দেবতা ভগবান শ্রীকৃষ্ণের আর্বিরভাব ঘটেছিল। দুষ্টের দমন সৃষ্টির লালন করতে, যুগে যুগে ভগবান মানুষের মাঝে অবর্তীন হয় এবং সত্যকে প্রতিষ্ঠা করেন। এছাড়াও ডাকুয়া ইউনিয়নের বাংলাবাজার রাধাকৃষ্ণ মন্দীর কমিটি ও এলাকার ভক্তর, জন্মাষ্টমিতে র্যালি ও প্রসাদ বিতরণ করেন।