ঢাকা ০৬:৪৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাকেরগঞ্জে শাহাদাৎ এর নারী ও শিশু নির্যাতন মামলায় ৫ বছরের সাজা প্রদান।

নজরুল ইসলাম আলীম//
  • আপডেট সময় : ০৯:৫৭:৫০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৪ ৮২ বার পড়া হয়েছে
সময়কাল এর সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার ১২ নং রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের বিহারীপুর গ্রামের মোঃ মোস্তফা খানের পুত্র মোঃ শাহাদাৎ খানকে নারী ও শিশু নির্যাতন মামলায় ৫ বছরের সাজা প্রদান করেন বরিশালের বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালত।আদালত সূত্রে জানা যায় যে,উপজেলার ১৪ নং নিয়ামতি ইউনিয়নের বাংলাবাজার নামক স্থানের মোসাঃ হেনা বেগমের বসত ঘরের জমা জমি জোরপূর্বক ভাবে দখলের চেষ্টা করিলে তাহাতে হেনা বেগম সাহাদাৎকে বাঁধা প্রদান করিলে সাহাদাৎ তাহাতে হেনা বেগমের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে দেশীয় অস্ত্রশাস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হেনা বেগমের উপর পৈশাচিক ভাবে নির্যাতন করা সহ শীলতাহানী করিলে তাহাতে হেনা বেগম নিরুপায় হয়ে শাহাদাৎকে খানকে প্রধান আসামী করে মোকাম বিজ্ঞ বরিশাল নারী ও শিশু দমন নির্যাতন ট্রাইবুনাল আদালতে মামলা দায়ের করেন।অতঃপর বিজ্ঞ আদালত গত ইংরেজি ২০২৩ সালের ৩০ অক্টোবর মাসের সাদাতৎ এর অনুপস্থিতে তাকে দোষী সাব্যস্ত করে ৫ বছরের সহশ্রম কারাদণ্ড সহ ২৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দন্ডিত করেন।বিজ্ঞ বিচারক উক্ত রায় আরো উল্লেখ করেন যে, উক্ত দন্ডিত টাকা প্রদানে ব্যর্থ হলে আরো তিন মাসের সহশ্রম কারাদন্ডে দণ্ডিত হবেন বলে আদালত সূত্রে জানা যায়।যাহার নারী ও শিশু মামলা নং-৩৬/২০২৩। বর্তমানে আসামের শাহাদাৎ সিঙ্গাপুরে পলাতক অবস্থায় রয়েছেন বলে পারিবারিক সূত্রে জানা যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

বাকেরগঞ্জে শাহাদাৎ এর নারী ও শিশু নির্যাতন মামলায় ৫ বছরের সাজা প্রদান।

আপডেট সময় : ০৯:৫৭:৫০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৪

বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার ১২ নং রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের বিহারীপুর গ্রামের মোঃ মোস্তফা খানের পুত্র মোঃ শাহাদাৎ খানকে নারী ও শিশু নির্যাতন মামলায় ৫ বছরের সাজা প্রদান করেন বরিশালের বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালত।আদালত সূত্রে জানা যায় যে,উপজেলার ১৪ নং নিয়ামতি ইউনিয়নের বাংলাবাজার নামক স্থানের মোসাঃ হেনা বেগমের বসত ঘরের জমা জমি জোরপূর্বক ভাবে দখলের চেষ্টা করিলে তাহাতে হেনা বেগম সাহাদাৎকে বাঁধা প্রদান করিলে সাহাদাৎ তাহাতে হেনা বেগমের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে দেশীয় অস্ত্রশাস্ত্রে সজ্জিত হয়ে হেনা বেগমের উপর পৈশাচিক ভাবে নির্যাতন করা সহ শীলতাহানী করিলে তাহাতে হেনা বেগম নিরুপায় হয়ে শাহাদাৎকে খানকে প্রধান আসামী করে মোকাম বিজ্ঞ বরিশাল নারী ও শিশু দমন নির্যাতন ট্রাইবুনাল আদালতে মামলা দায়ের করেন।অতঃপর বিজ্ঞ আদালত গত ইংরেজি ২০২৩ সালের ৩০ অক্টোবর মাসের সাদাতৎ এর অনুপস্থিতে তাকে দোষী সাব্যস্ত করে ৫ বছরের সহশ্রম কারাদণ্ড সহ ২৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ডে দন্ডিত করেন।বিজ্ঞ বিচারক উক্ত রায় আরো উল্লেখ করেন যে, উক্ত দন্ডিত টাকা প্রদানে ব্যর্থ হলে আরো তিন মাসের সহশ্রম কারাদন্ডে দণ্ডিত হবেন বলে আদালত সূত্রে জানা যায়।যাহার নারী ও শিশু মামলা নং-৩৬/২০২৩। বর্তমানে আসামের শাহাদাৎ সিঙ্গাপুরে পলাতক অবস্থায় রয়েছেন বলে পারিবারিক সূত্রে জানা যায়।