ঢাকা ০৪:৫৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মাদারীপুর জেলার ডাসারে মার্কেট মালিকদের সংবাদ সম্মেলন

মাদারীপুর,প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় : ১০:০৯:১৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ৭৫ বার পড়া হয়েছে
সময়কাল এর সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মাদারীপুর জেলার ডাসার উপজেলার ধামুসা বাজারে আল আরাফাহ ইসলামী এজেন্ট ব্যাংকের সামনে টল ঘর নির্মাণ কাজ না করার জন্য সংবাদ সম্মেলন করেছে স্থানীয় মার্কেট মালিক ইতালি প্রবাসী মোঃ হেমায়েত শিকদারের বাবা মোঃ সোবাহান শিকদার। রবিবার (১০ সেপ্টেম্বর) ২০২৩ ইং তারিখ সকাল ১১ ঘটিকার সময় ডাসার উপজেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির কার্যালয়, পাথুরিয়ারপাড় মীর সেকেন্দার আলী সুপার মার্কেটে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন সিকদার মার্কেটের মালিক ইতালি প্রবাসী মোঃ হেমায়েত সিকদারের বাবা সোবাহান সিকদার। এবিষয়ে নির্মাণ কাজ না করার জন্য মাদারীপুর জেলা প্রশাসক, এল জি ইডি প্রকৌশলী, ডাসার উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও কালকিনি উপজেলা প্রকৌশলী বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন স্থানীয় মার্কেটের মালিক সোবাহান শিকদার ও নুরুজ্জামান তালুকদার, আল আরাফাহ ইসলামী এজেন্ট-ব্যাংক কতৃপক্ষ আবু ইউসুফ, দোকান মালিকদের পক্ষে সৈয়দ রেজাউল করিম সুমন। সংবাদ সম্মেলনে সোবাহান শিকদার জানান- মাদারীপুর ডাসার উপজেলার ভুরঘাটা- শশিকর রাস্তার দক্ষিন পার্শ্বে আমার ছেলে হেমায়েত শিকদারের ব্যাক্তি মালিকানাধীন সম্পত্তিতে শিকদার মার্কেট অবস্থিত। কিন্তু ইতিমধ্যে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায় ডাসার এলাকার ধামুসা বাজার পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দ টলঘর নির্মাণের জন্য কালকিনি উপজেলা প্রকৌশলী বরাবর একটি রেজুলেশন করে কফি জমা দিয়েছেন। উক্ত রেজুলেশনের বিপক্ষে আমরা একটি লিখিত অভিযোগ করেছি, অভিযোগে লেখা হয়েছে, সিকদার মার্কেটের সামনে এল জি ইডি কর্তৃপক্ষ একটি পাকা টলঘর স্থাপনা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এখানে টলঘর নির্মাণ করা হলে ব্যবসায়ীদের দীর্ঘ্য দিনের তৈরী করা বাজার পরিচিতি নষ্ট হয়ে যাবে বলে জানান অভিযোগ কারীরা। যার কারনে আমাদের মার্কেট মালিক, দোকান মালিক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের অপুরনীয় ক্ষতি সাধন হবে বলে জানিয়েছেন অভিযোগ কারীরা। অভিযোগ কারীরা আরো বলেন, এলাকার সুবিধার্থে ও বাজার বড় করতে টলঘরটি সিকদার মার্কেটের পশ্চিম পাশে ৩০ ফিট দূরে সরকারি খাস খতিয়ানের ৩৩ নং ধামুসা মৌজার ৭৩৫ নং দাগে টলঘর নির্মান করা হলে আল আরাফাহ ইসলামী এজেন্ট ব্যাংক, দোকান ব্যবসায়ী, স্কুল মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের যাতায়াত ও যান বাহনের চলাচলে সুবিধা হবে। টলঘর নির্মাণ কাজ বন্ধ করার দাবিতে আমরা মার্কেটের দোকান মালিক হিসেবে সরকারের কাছে জোর দাবি জানাই।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

মাদারীপুর জেলার ডাসারে মার্কেট মালিকদের সংবাদ সম্মেলন

আপডেট সময় : ১০:০৯:১৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০২৩

মাদারীপুর জেলার ডাসার উপজেলার ধামুসা বাজারে আল আরাফাহ ইসলামী এজেন্ট ব্যাংকের সামনে টল ঘর নির্মাণ কাজ না করার জন্য সংবাদ সম্মেলন করেছে স্থানীয় মার্কেট মালিক ইতালি প্রবাসী মোঃ হেমায়েত শিকদারের বাবা মোঃ সোবাহান শিকদার। রবিবার (১০ সেপ্টেম্বর) ২০২৩ ইং তারিখ সকাল ১১ ঘটিকার সময় ডাসার উপজেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির কার্যালয়, পাথুরিয়ারপাড় মীর সেকেন্দার আলী সুপার মার্কেটে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন সিকদার মার্কেটের মালিক ইতালি প্রবাসী মোঃ হেমায়েত সিকদারের বাবা সোবাহান সিকদার। এবিষয়ে নির্মাণ কাজ না করার জন্য মাদারীপুর জেলা প্রশাসক, এল জি ইডি প্রকৌশলী, ডাসার উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও কালকিনি উপজেলা প্রকৌশলী বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন স্থানীয় মার্কেটের মালিক সোবাহান শিকদার ও নুরুজ্জামান তালুকদার, আল আরাফাহ ইসলামী এজেন্ট-ব্যাংক কতৃপক্ষ আবু ইউসুফ, দোকান মালিকদের পক্ষে সৈয়দ রেজাউল করিম সুমন। সংবাদ সম্মেলনে সোবাহান শিকদার জানান- মাদারীপুর ডাসার উপজেলার ভুরঘাটা- শশিকর রাস্তার দক্ষিন পার্শ্বে আমার ছেলে হেমায়েত শিকদারের ব্যাক্তি মালিকানাধীন সম্পত্তিতে শিকদার মার্কেট অবস্থিত। কিন্তু ইতিমধ্যে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায় ডাসার এলাকার ধামুসা বাজার পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দ টলঘর নির্মাণের জন্য কালকিনি উপজেলা প্রকৌশলী বরাবর একটি রেজুলেশন করে কফি জমা দিয়েছেন। উক্ত রেজুলেশনের বিপক্ষে আমরা একটি লিখিত অভিযোগ করেছি, অভিযোগে লেখা হয়েছে, সিকদার মার্কেটের সামনে এল জি ইডি কর্তৃপক্ষ একটি পাকা টলঘর স্থাপনা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এখানে টলঘর নির্মাণ করা হলে ব্যবসায়ীদের দীর্ঘ্য দিনের তৈরী করা বাজার পরিচিতি নষ্ট হয়ে যাবে বলে জানান অভিযোগ কারীরা। যার কারনে আমাদের মার্কেট মালিক, দোকান মালিক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের অপুরনীয় ক্ষতি সাধন হবে বলে জানিয়েছেন অভিযোগ কারীরা। অভিযোগ কারীরা আরো বলেন, এলাকার সুবিধার্থে ও বাজার বড় করতে টলঘরটি সিকদার মার্কেটের পশ্চিম পাশে ৩০ ফিট দূরে সরকারি খাস খতিয়ানের ৩৩ নং ধামুসা মৌজার ৭৩৫ নং দাগে টলঘর নির্মান করা হলে আল আরাফাহ ইসলামী এজেন্ট ব্যাংক, দোকান ব্যবসায়ী, স্কুল মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের যাতায়াত ও যান বাহনের চলাচলে সুবিধা হবে। টলঘর নির্মাণ কাজ বন্ধ করার দাবিতে আমরা মার্কেটের দোকান মালিক হিসেবে সরকারের কাছে জোর দাবি জানাই।