ঢাকা ০৬:০৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মুন্সীগঞ্জে ১১ বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগ ওসমান গনি

ওসমান গনি মুন্সীগঞ্জ
  • আপডেট সময় : ১০:৫২:১৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৪ অক্টোবর ২০২৩ ৮৬ বার পড়া হয়েছে
সময়কাল এর সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মুন্সীগঞ্জে ১১ বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগ

মুন্সীগঞ্জে ১১ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। সোমবার সন্ধ্যা ৭ টার দিকে সদর উপজেলার চরাঞ্চলের শিলই ইউনিয়নের দেওয়ানকান্দি গ্রামে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে৷এ ঘটনার সাথে জড়িতের অভিযোগে ধর্ষক নয়ন মাদবর(২০)কে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুর ১২ টার দিকে ধর্ষণের শিকার শিশু কন্যাকে মেডিকেল চেকআপের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।ধর্ষক নয়ন মাদবর সদর উপজেলার চরাঞ্চলের শিলই ইউনিয়নের দেওয়ানকান্দি আশ্রয়ন প্রকল্পের সুরুজ মাদবরের ছেলে। এছাড়াও ধর্ষণের শিকার মেয়েটি একই আশ্রয়ন প্রকল্পে তার পরিবার সাথে থাকে।

ধর্ষিতা আর পরিবার সূত্রে জানা গেছে,সোমবার সন্ধ্যায় দেওয়ানকান্দি আশ্রয়ন প্রকল্পের ১১ বছরের কন্যা শিশুটি প্রকল্পের পাশের রাস্তায় হাঁটছিলেন এ সময়ে ধর্ষক প্রকল্পের আশ্রয়নরত সুরুজ মাদবরের ছেলে।অভিযোগ নয়ন ধর্ষিতা শিশুটিকে সিগারেট এনে দিতে বলে শিশুর মুখ চেপে পার্শ্ববর্তী ধইঞ্চা খেতে নিয়ে যায়।পরে সেখানে জোরপূর্বক ওই শিশুটিকে ধর্ষণ করে নয়ন।পরে ধর্ষিতা শিশু নয়নের হাত থেকে ছুটে দৌড়ে আশ্রয়ন প্রকল্পে চলে আসে।শিশুটিকে আতঙ্কিত অবস্থায় দৌড়ে আসতে দেখে আশ্রয়ন প্রকল্পের লোকজন শিশুটিকে জিজ্ঞাসা করলে ধর্ষণের বিষয়টি জানালে তাৎক্ষণিক মুন্সীগঞ্জ সদর থানায় এসে ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত নয়নকে আসামী করে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ধর্ষিতার দাদী শাহানাজ বেগম।পরে রাতেই ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত নয়ন মাদবর(২০)কে আটক করে পুলিশ।

ধর্ষিতার দাদী শাহানাজ বেগম জানান,লম্পট নয়ন আমার নাতিনকে সিগারেট এনে দিতে বলে জোর করে ধরে নিয়ে যায় পার্শ্ববর্তী কৃষি জমি ধইঞ্চা খেতে।সেখানে আমার নাতনিকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে নয়ন।এই ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানিয়ে মুন্সীগঞ্জ সদর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে অভিযুক্ত নয়নকে আটক করে পুলিশ।

ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত নয়ন কে আটক এর বিষয়টি নিশ্চিত করে,সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি)মোঃ আমিনুল ইসলাম জানান,ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত নয়নকে ইতোমধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে।তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে এবং ধর্ষণের শিক্ষার শিশুটিকে মেডিকেল চেকআপের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

মুন্সীগঞ্জে ১১ বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগ ওসমান গনি

আপডেট সময় : ১০:৫২:১৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৪ অক্টোবর ২০২৩

মুন্সীগঞ্জে ১১ বছরের শিশু কন্যাকে ধর্ষণের অভিযোগ

মুন্সীগঞ্জে ১১ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। সোমবার সন্ধ্যা ৭ টার দিকে সদর উপজেলার চরাঞ্চলের শিলই ইউনিয়নের দেওয়ানকান্দি গ্রামে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে৷এ ঘটনার সাথে জড়িতের অভিযোগে ধর্ষক নয়ন মাদবর(২০)কে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার দুপুর ১২ টার দিকে ধর্ষণের শিকার শিশু কন্যাকে মেডিকেল চেকআপের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।ধর্ষক নয়ন মাদবর সদর উপজেলার চরাঞ্চলের শিলই ইউনিয়নের দেওয়ানকান্দি আশ্রয়ন প্রকল্পের সুরুজ মাদবরের ছেলে। এছাড়াও ধর্ষণের শিকার মেয়েটি একই আশ্রয়ন প্রকল্পে তার পরিবার সাথে থাকে।

ধর্ষিতা আর পরিবার সূত্রে জানা গেছে,সোমবার সন্ধ্যায় দেওয়ানকান্দি আশ্রয়ন প্রকল্পের ১১ বছরের কন্যা শিশুটি প্রকল্পের পাশের রাস্তায় হাঁটছিলেন এ সময়ে ধর্ষক প্রকল্পের আশ্রয়নরত সুরুজ মাদবরের ছেলে।অভিযোগ নয়ন ধর্ষিতা শিশুটিকে সিগারেট এনে দিতে বলে শিশুর মুখ চেপে পার্শ্ববর্তী ধইঞ্চা খেতে নিয়ে যায়।পরে সেখানে জোরপূর্বক ওই শিশুটিকে ধর্ষণ করে নয়ন।পরে ধর্ষিতা শিশু নয়নের হাত থেকে ছুটে দৌড়ে আশ্রয়ন প্রকল্পে চলে আসে।শিশুটিকে আতঙ্কিত অবস্থায় দৌড়ে আসতে দেখে আশ্রয়ন প্রকল্পের লোকজন শিশুটিকে জিজ্ঞাসা করলে ধর্ষণের বিষয়টি জানালে তাৎক্ষণিক মুন্সীগঞ্জ সদর থানায় এসে ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত নয়নকে আসামী করে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন ধর্ষিতার দাদী শাহানাজ বেগম।পরে রাতেই ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত নয়ন মাদবর(২০)কে আটক করে পুলিশ।

ধর্ষিতার দাদী শাহানাজ বেগম জানান,লম্পট নয়ন আমার নাতিনকে সিগারেট এনে দিতে বলে জোর করে ধরে নিয়ে যায় পার্শ্ববর্তী কৃষি জমি ধইঞ্চা খেতে।সেখানে আমার নাতনিকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে নয়ন।এই ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের দাবি জানিয়ে মুন্সীগঞ্জ সদর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে অভিযুক্ত নয়নকে আটক করে পুলিশ।

ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত নয়ন কে আটক এর বিষয়টি নিশ্চিত করে,সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি)মোঃ আমিনুল ইসলাম জানান,ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত নয়নকে ইতোমধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে।তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে এবং ধর্ষণের শিক্ষার শিশুটিকে মেডিকেল চেকআপের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।