ঢাকা ০৯:৪৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিরাজগঞ্জ তাড়াশ চলনবিল মহিষলুটি বাজার রোদে শুকিয়ে তৈরী করা হয় শুটকি মাছ।

সিরাজগঞ্জ থেকে মোঃ শাহাবুদ্দিন সেলিম
  • আপডেট সময় : ১০:১৯:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৫ অক্টোবর ২০২৩ ৬৩ বার পড়া হয়েছে
সময়কাল এর সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

সিরাজগঞ্জ তাড়াশ মহিষলুটি বাজার এবং চলনবিল সংরক্ষণের ব্যবস্থা না থাকার কারণে তাজা মাছ সহজেই পঁচে যায়। খাদ্য সংরক্ষণের এক প্রাচীন পদ্ধতী হল খাদ্য শুকানো শুঁটকি বা মাছকে রোদে শুকিয়ে সংরক্ষণ তেমনই একটি পদ্ধতি যাতে মাছকে রোদে রাখা হয়। পানি অপসারণের জন্য কারণ পানির কারণেই বিভিন্ন অনুজীব বেঁচে থাকে এবং মাছকে পঁচাতে সাহায্য করে। খোলা জায়গায় বাতাস এবং রোদ ব্যবহার করে মাছকে শুকানোর প্রথা অনেক প্রাচীন কাল থেকেই চলে আসছে।সাধারণত পানি বাতাস, রোদ, ধোঁয়া ইত্যাদির সাহায্যে
শুকানো হয়।

সিরাজগঞ্জ তাড়াশ মহিষলুটি বাজার চলনবিল অদ্ধোশিত শুধু
দেশেই নয় বাণিজ্যিক
ভাবে এই শুটকি দেশের
বাইরেও চলে যাচ্ছে।
এতে করে অনেকই সাবলম্বি হয়।

মোঃ নান্নু হোসাইন, তিনি বলেন আমরা এই শুটকি
সৈয়দপুর সহ দেশের অনেক চাহিদা
মিটিয়ে দেশের বাইরেও রপ্তানি করে থাকি।
মাছকে এভাবে সংরক্ষণ করার জন্য শুকানো, ধোঁয়ার ব্যবহার এবং লবণ পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়। সবচেয়ে পুরনো এবং সহজ পদ্ধতি হল মাছকে বাতাসে ও রোদে শুকানো হয়।শুকনো মাছের আয়ুষ্কাল কয়েক বছর পর্যন্ত হতে পারে। এই পদ্ধতি সবচেয়ে সহজ, কমদামি এবং কার্যকর হয় অনুকূল আবহাওয়াতে। জেলেরা বা তার পরিবারের সদস্যরা এই কাজ সাধারণত করে থাকে এবং তা সহজেই বাজারজাত করণ করতে পারা যায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

সিরাজগঞ্জ তাড়াশ চলনবিল মহিষলুটি বাজার রোদে শুকিয়ে তৈরী করা হয় শুটকি মাছ।

আপডেট সময় : ১০:১৯:৪৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৫ অক্টোবর ২০২৩

সিরাজগঞ্জ তাড়াশ মহিষলুটি বাজার এবং চলনবিল সংরক্ষণের ব্যবস্থা না থাকার কারণে তাজা মাছ সহজেই পঁচে যায়। খাদ্য সংরক্ষণের এক প্রাচীন পদ্ধতী হল খাদ্য শুকানো শুঁটকি বা মাছকে রোদে শুকিয়ে সংরক্ষণ তেমনই একটি পদ্ধতি যাতে মাছকে রোদে রাখা হয়। পানি অপসারণের জন্য কারণ পানির কারণেই বিভিন্ন অনুজীব বেঁচে থাকে এবং মাছকে পঁচাতে সাহায্য করে। খোলা জায়গায় বাতাস এবং রোদ ব্যবহার করে মাছকে শুকানোর প্রথা অনেক প্রাচীন কাল থেকেই চলে আসছে।সাধারণত পানি বাতাস, রোদ, ধোঁয়া ইত্যাদির সাহায্যে
শুকানো হয়।

সিরাজগঞ্জ তাড়াশ মহিষলুটি বাজার চলনবিল অদ্ধোশিত শুধু
দেশেই নয় বাণিজ্যিক
ভাবে এই শুটকি দেশের
বাইরেও চলে যাচ্ছে।
এতে করে অনেকই সাবলম্বি হয়।

মোঃ নান্নু হোসাইন, তিনি বলেন আমরা এই শুটকি
সৈয়দপুর সহ দেশের অনেক চাহিদা
মিটিয়ে দেশের বাইরেও রপ্তানি করে থাকি।
মাছকে এভাবে সংরক্ষণ করার জন্য শুকানো, ধোঁয়ার ব্যবহার এবং লবণ পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়। সবচেয়ে পুরনো এবং সহজ পদ্ধতি হল মাছকে বাতাসে ও রোদে শুকানো হয়।শুকনো মাছের আয়ুষ্কাল কয়েক বছর পর্যন্ত হতে পারে। এই পদ্ধতি সবচেয়ে সহজ, কমদামি এবং কার্যকর হয় অনুকূল আবহাওয়াতে। জেলেরা বা তার পরিবারের সদস্যরা এই কাজ সাধারণত করে থাকে এবং তা সহজেই বাজারজাত করণ করতে পারা যায়।